সিরিজের প্রথম টি-টুয়েন্টিতে ৫ উইকেটে জিতলো নিউজিল্যান্ড

অকল্যান্ডে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে সফরকারিদের ৫ উইকেটে হারিয়েছে কিউইরা। এতে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল স্বাগতিক দল।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ডাফির বোলিং তোপে পড়েছিল পাকিস্তান। অধিনায়ক শাদাব খানের ব্যাটে শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ১৫৩ রান করে তারা। জবাবে ১৮.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ১৫৬ রান করে নিউজিল্যান্ড।  

ডাফি প্রথম ওভারেই খালি হাতে ফেরান আব্দুল্লাহ শফিককে। নিজের দ্বিতীয় ওভারে আরও ভয়ঙ্কর ২৬ বছরের এই ডানহাতি পেসার। ইনিংসের চতুর্থ ওভারের পঞ্চম ও ষষ্ঠ বলে তার শিকার মোহাম্মদ রিজওয়ান (১৭) ও মোহাম্মদ হাফিজ (০)। 

পরের ওভারে বল হাতে নিয়ে হায়দার আলীকে (৩) ফিরতি ক্যাচে ড্রেসিংরুমের পথ দেখান স্কট কুগেলেইন। তাতে টানা তিন বলে পাকিস্তানের ৩ উইকেটের পতন ঘটে।

এরপর ইশ সোধির স্পিনে দলীয় ৩৯ রানে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে মার্টিন গাপটিলের ক্যাচ হন খুশদিল শাহ (১৬)। ইমাদ ওয়াসিমকে নিয়ে অধিনায়ক শাদাব খান ৪০ রানের জুটির ফলে ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৫৩ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান।

নিউজিল্যান্ডের তরুণ পেসার জ্যাকব ডাফিই মূলত সব আলো নিজের ওপর নিয়ে গেছেন। অভিষেকেই কাঁপিয়ে দিয়েছেন তিনি পাকিস্তানি ব্যাটিং। ডানহাতি পেসার ৩৩ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। আরেক পেসার স্কট কুগেলাইন নিয়েছেন ৩ উইকেট, ২৭ রানের খরচায়।

১৫৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডও কাজটা খুব সহজে সারতে পারেনি। ৮ রানে প্রথম উইকেট হারানো কিউইরা একপর্যায়ে ৬৫ রান তুলতেই হারিয়ে বসেছিল ৩ উইকেট। এরপর টিম সেইফার্টের ৪৩ বলে ৫৭ রান নিউজিল্যান্ডকে ঘুরে দাঁড়াতে বড় অবদান রেখেছে। শেষের দিকে গ্লেন ফিলিপ (১৮ বলে ২৩ রান), মার্ক চ্যাপম্যান (২০ বলে ৩৪ রান), জিমি নিশাম (১০ বলে ১৫ রান) আর মিচেল স্যান্টনাল ৮ বলে ১২ রান করে নিউজিল্যান্ডকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান।

পাকিস্তানের পক্ষে হারিস রউফ ৩ উইকেট এবং শাহিন আফ্রিদি ২ উইকেট নিয়েছেন। ম্যাচ সেরা হন জ্যাকব ডার্ফি।