যে ৫টি লক্ষণ দেখে বুঝা যাবে শাক সবজি কম খাওয়া হচ্ছে

কথায় আছে খাবারের প্লেট যত রঙিন হয় খাবার ততো সুস্বাদু হয়। আমাদের খাদ্য তালিকা টমেটোর লাল রং, শাকসবজির সবুজ রং, শস্যের বাদামী রং এবং ফলের হলুদ ও কমলা রঙে পূর্ণ থাকা উচিত।

সকল শাকসবজিতেই যথেষ্ট পরিমানে পুষ্টি থাকে যা আমাদের শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি চাহিদা পূরণ করে। ফলে যখনই খাদ্য তালিকা থেকে কোন একটি খাবার বাদ দেয়া হয় তখনই শরীর এর অভাব বোধ করে বিভিন্ন লক্ষণ প্রকাশ করে।

এখানে এমনই কিছু লক্ষণ উল্লেখ করা হলো:

মাড়ির ক্ষত ও রক্তপাত: মাড়ি থেকে রক্ত পড়ার একটি কারণ হলো মৌখিক স্বাস্থ্যবিধির অবহেলা। যাইহোক এর আরেকটি প্রধান কারণ হলো ভিটামিন সি-এর অভাব। আমাদের শরীর ভিটামিন সি উৎপন্ন করতে পারে না। তাই নজর রাখতে হবে এর চাহিদাপূরণ করার মতো খাদ্য যেন আমাদের দৈনিক খাদ্য তালিকাতে থাকে।

ভিটামিন সি-এর অভাবে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমে যায়। ভিটামিন সি শুধু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই নিয়ন্ত্রণ করে না, যেকোন কোষের ক্ষতি রোধ এবং দ্রুত ক্ষতিগ্রস্থ কোষের নিরাময়ও করে। ভিটামিন সি শুধু লেবু, কমলার মতো টক জাতীয় ফলেই পাওয়া যায় না, শুকনা মরিচ, পাতা কপি, লাল মরিচ, সবুজ শাক সবজি, ব্রকলি এবং টমেটোতেও পাওয়া যায়।

ক্লান্তি: যখনই শরীরে ফোলেট (ফলিক এসিড) তখনই শরীরে ক্লান্তি ও অবসাদ দেখা দেয়। সবুজ শাক সবজি, শাপলা, মটর, মটরশুটি এবং মসুর ডাল থেকে ফলিক এসিড পেয়ে থাকে শরীর। ফলে এসবের কোন একটি খাদ্য তালিকা থেকে বাদ পড়লে শরীর এর অভাব প্রকাশ করে এই লক্ষণ প্রদর্শণ করে।

পেশীতে টান: যদি নিয়মিত পেশীতে টান লাগে, তবে বুঝতে হবে এটি শরীরে পটাসিয়ামের স্বল্পতা নির্দেশ করে। স্বাভাবিক পেশী সংকোচনের জন্য শরীরের একটি নির্দিষ্ট পরিমান পটাসিয়ামের প্রয়োজন। পালং শাকের মতো সবুজ শাকসবজি এবং মিষ্টি আলু হচ্ছে পটাসিয়ামের প্রধান উৎস। কলাতেও প্রচুর পটাসিয়াম পাওয়া যায়। একটি মাঝারি আকারের প্রায় ৪২২ মিগ্রা. পটাসিয়াম পাওয়া যায়।

কোষ্ঠকাঠিণ্য: খাদ্য তালিকা থেকে তন্তু জাতীয় খাবার বাদ পড়লে এই সমস্যা দেখা দেয়। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক লোকের প্রতিদিন কমপক্ষে ২৫ গ্রাম তন্তু জাতীয় খাবার গ্রহন করা উচিত। উটস, বালির্, বাদাম, মটরশুটি, মসুর ডাল এবং মটর জাতীয় খাবার তন্তু সমৃদ্ধ। এর সাথে নজর রাখতে হবে যথেষ্ট পরিমানে পানি পান করার দিকেও।

ভূলে যাওয়া: কোন কিছু ভূলে যাওয়া স্বাভাবিক কিন্তু এটি যখন নিয়মিত হয়, তখন বুঝতে হবে ব্রেন যথেষ্ট পুষ্টি পাচ্ছে না। লুটিনের অভাবে ব্রেনের এই লক্ষণ প্রকাশ পায়। সবুজ শাক, গাজর, ব্রোকোলি এবং টমেটো থেকে লুটিন পাওয়া যায়। তাই দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় এসব খাবার নিয়মিত রাখা উচিত।