কানের টিনিটাস রোগ দূর করার উপায়

টিনিটাস কানের একটি রোগ। এই রোগ হলে কানে সব সময় এক ধরনের শব্দ শুনতে পায় রোগী। এই শব্দ সাধারনত মোবাইলের রিংটোন, বাঁশি, গুনগুন, কিচিরমিচির বা হিসহিসের মতো হয়ে থাকে। টিনিটাসে আক্রান্ত রোগীর কানে এ ধরনের শব্দ খুব আস্তে আস্তে বা খুব জোরে হতে পারে। যদিও এ ধরনের শব্দের সত্যিকারের কোন উৎস থাকে না। বিশ্বজুড়ে কয়েক লক্ষ লোক এই রোগে অঅক্রান্ত। বিভিন্ন কারনে কানে টিনিটাস হতে পারে। এর মধ্যে অন্যতম কিছু কারণ হলো ইয়ার ফোনের অতিরিক্ত ব্যবহার, কানে অতিরিক্ত খৈল জমা হলে, কানের কোন ইনফেকশন থেকে, থাইরয়েডের সমস্যা থেকে এবং এমনকি হার্টের রোগ থেকেও টিনিটাস হতে পারে।

যাইহোক, টিনিটাসে আক্রান্ত হলে নিচের চিকিৎসা বা প্রাতকারগুলো নেয়া যেতে পারে:

শব্দ এড়ানোর যন্ত্র: বাজারে কিছু শব্দ এড়ানো হেডফোন বা ইয়ারপ্লাগ পাওয়া যায়। এই যন্ত্রগুলো টিনিটাসের কারণে কানে বাজতে থাকা শব্দগুলোকে দূর করে স্বাভাবিক প্রাকৃতিক শব্দ শুনতে সাহায্য করে। এই ধরনের যন্ত্রেও সাহায্যে টিনিটাসের শব্দের সাথে বাইরের শব্দের একটা সামঞ্জস্য করানো যায় যা টিনিটাসের শব্দকে সম্পূর্ণভাবে দূর করা সম্ভব। শুধু টিনিটাসের শব্দই না অন্যান্য শব্দ যেমন ড্রিল মেশিন বা হেজ ট্রিমারের শব্দও এড়ানো সম্ভব এ ধরনের যন্ত্র ব্যবহার করে।

যোগব্যায়াম ও মেডিটেশন: দীর্ঘস্থায়ী টিনিটাস মানসিক চাপ ও উদ্বিগ্নতা বাড়াতে পারে এবং মনোযোগেও প্রভাব ফেলতে পারে। ব্রিটিশ টিনিটাস অ্যাসোসিয়েশনের মতে যোগব্যায়াম এই চাপ কমিয়ে মনোযোগ বাড়াতে সাহায্য করে। বিভিন্ন টিনিটাস অ্যাসোসিয়েশনের মতে যোগব্যায়াম এই চাপ কমিয়ে মনোযোগ বাড়াতে সাহায্য করে। বিভিন্ন ধরনের যোগাসন যেমন: উল্টাসন, ভুজুঙ্গাসন ইত্যাদি শুধু মনোযোগ বাড়াতেই নয়, এসব যোগাসন শরীরকে শক্তিশালী করতেও সাহায্য করে।

নিয়মিত কানের খৈল পরিষ্কার করা: যদি কানে খৈল জমার কারণে টিনিটাস হয়ে থাকে, তাহলে এই রোগ থেকে মুক্তির জন্য নিয়মিত কান পরিষ্কার করা এবং কানের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাই সবচেয়ে ভালো উপায়। তবে মনে রাখতে হবে যে, কান পরিষ্কার করতে কটন বার বা ম্যাচের কাঠি ব্যবহার করা যাবে না কারণ এতে ভালোর চেয়ে বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে কানের। এর পরিবর্তে সপ্তাহে একদিন কানে দুই-এক ফোঁটা ওলিভ অয়েল তেল ব্যবহার করলে খৈল জমা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

ট্রিগার এড়িয়ে চলা: কিছু ঔষধ যেমন: অ্যাসপিরিন, অ্যান্টিম্যালারিয়াল ড্রাগস, এবং ট্রাইসাইক্লিক অ্যান্টিডিপ্রেসেন্টস টিনিটাসকে আরো খারাপ করে তুলতে পারে। ধূমপান, মদ্যপান, এবং লবনও টিনিটাস বাড়িয়ে তুলতে পারে। যদি দীর্ঘস্থায়ী টিনিটাস থেকে থাকে, তাহলে কোন ট্রিগারটির জন্য এটি কমছে না তা খুঁজে বের করে তা বাদ দিলে টিনিটাস থেকে আরোগ্য লাভ করতে সহজ হবে।

কোক্লিয়ার স্থাপন: কোক্লিয়ার হলো এক ধরনের যন্ত্র, যা কোন ব্যক্তির কানে স্থাপন করে শ্রবণ শক্তি ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। এই যন্ত্রটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যারা টিনিটাসের কারণে কানে কম শোনে তাদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। এই যন্ত্রটি বাইরের শব্দকে ভিতরে টেনে আনে। এরফলে টিনিটাসের শব্দকেও সহজে দূর করা যায় এই যন্ত্র ব্যবহার করে।