শিশু খাদ্যে ধাতব পদার্থ মিশিয়ে ১৪ বছরের জেল

সোমবার ইংল্যান্ডের এক মেষ খামারীকে ১৪ বছরের জেল দিয়েছে দেশটির আদালত। ব্রিটেনের অন্যতম বৃহত্তম সুপার মার্কেট চেইনকে ব্ল্যাকমেইল করার জন্য অপরাধী শিশুদের খাবারে ধাতব পদার্থ ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই শাস্তি দেওয়া হয় তাকে।

নাইজেল রাইট শিশুদের দূষিত খাবারের জারগুলো টেস্কো মুদির দোকানে দিয়েছিলেন এবং ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারী মাসের মধ্যে বিটকয়েনে ১.৪ মিলিয়ন পাউন্ড (১.৮ মিলিয়ন ডলার) জোর করে আদায় করার জন্য সুপার মার্কেট সংস্থাকে কয়েক ডজন চিঠি ও মেইল করেন।

হেইঞ্জ শিশু খাবারের জারে ধাতব পাওয়ার পর দুই শিশুর মা টেস্কোকে জানালে তাদের জারগুলো পরিবর্তন করে দেন, এবং এরপরই বিষয়টি জানতে পারেন দোকান মালিক। তবে এই ঘটনায় কোন শিশু আহত না হলেও ৪২ হাজার হেইঞ্জ শিশু খাবারের জারে এই ধাতব পদার্থ উদ্ধার করা হয়।

৪৫ বছর বয়সী রাইটের বিরুদ্ধে শিশুদের খাদ্য নিষিদ্ধ দ্রব্য মিশানো এবং ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ আনা হলেও একদল কৃষক তার বিরুদ্ধে তাদের দুধের দাম কম দেয়ারও অভিযোগ করে। রাইট অবশ্য তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করলেও নিষিদ্ধ পদার্থ মেশানোর দুটি এবং ব্ল্যাকমেইল করার তিনটি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়।

রাইটকে সাজা দেয়া বিচারক মার্ক ওয়ার্বি তার কাজকে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সাথে তুলনা করেন এবং বলেন এই কাজের জন্য তার মধ্যে কোন রকম অনুশোচনা ছিল না।