ভিয়েনায় হামলাকারীর সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চার জনের বাড়িতে জার্মাণ পুলিশের অভিযান

শুক্রবার জার্মান পুলিশ এই সপ্তাহে ভিয়েনায় মারাত্মক হামলা চালানো ইসলামিক স্টেটের অনুসারীর সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে এমন চারজন ব্যক্তির বাসা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়েছে।

দেশটির ফেডারেল পুলিশ জানিয়েছে, সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিট জিএসজি-৯-এর সদস্যসহ কর্মকর্তারা ওসনাব্রুক, ক্যাসেল এবং পিনবার্গ কাউন্টিতে তল্লাশি চালিয়েছে।

পুলিশ জানায়, যদিও সোমবারের ঘটনার সাথে তাদের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে না, তবে হামলাকারীর সাথে তাদের যোগযোগ থাকার প্রমাণ রয়েছে।

উল্লেখ্য, সোমবারের ঐ ঘটনায় হামলাকারীসহ পাঁচজন নিহত এবং এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২০ জন আহত হয়।

জার্মানির বিকেএ ক্রিমিনাল পুলিশ জানায়, অস্ট্রিয়ার জুডিশিয়ারী বিভাগ জার্মান প্রসিকিউটরদের কাছে তথ্য প্রদান করার পরই এই তল্লাশি অভিযানের অনুমতি দেয়া হয়।

জার্মান প্রসিকিউটররা জানায়, এই চার জনের মধ্যে দুই জন এই গ্রীষ্মে ভিয়েনায় হামলাকারীর সাথে দেখা করেছেন বলে জানা যায়। আরেকজনের সাথে হামলাকারীর অনলাইনে যোগাযোগের প্রমাণ পাওয়া গেছে। আর অপর এক জনের সাথে হামলাকারীর সরাসরি যোগাযোগের প্রমাণ পাওয়া না গেলেও অপর তিনজনের সাথে তার যোগাযোগ রয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে।

প্রসিকিউটররা আরো জানায় যে, তল্লাশির সময় শুধু প্রমাণ সংগ্রহ করার চেষ্টা করা হচ্ছে এবং কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

অস্ট্রিয়া কর্তৃপক্ষ হামলাকারীকে চিহ্ণিত করেছে। হামলাকারীর নাম কুজতিম ফেজুলাই, বয়স ২০ বছর। তার অস্ট্রিয়া এবং উত্তর মেসোডোনিয়ার দ্বৈত নাগরিকত্ব ছিল। এর আগে তাকে সিরিয়ায় আইএসে যোগ দেয়ার চেষ্টা করার জন্য শাস্তি দেয়া হয়েছিল এবং ডিসেম্বরের প্রথম দিকে তাকে এই শাস্তি থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছিল।

জুলাইয়ে স্লোভাকিয়ান কর্তৃপক্ষ জানায় যে, ব্র্যাটিস্লাভার একটি দোকান থেকে অ্যাসল্ট রাইফেল ও গোলাবারুদ কেনার চেষ্টা করছে ফেজুলাই। এমন তথ্য পাওয়া সত্ত্বেও অস্ট্রিয়া কেন তাকে পর্যবেক্ষনে রাখেনি, সে বিষয়ে একটি তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

এদিকে সোমবারের এই ঘটনার পর অস্ট্রিয়া কর্তৃপক্ষ ১৮টি বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে এবং ১৫ জনকে আটক করেছে। তাদের মধ্যে ৪ জনের বিরুদ্ধে এর আগে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের এবং আরো কয়েকজনের বিভিন্ন অপরাধের প্রমাণ পাওয়া গেছে। প্রতিবেশী সুইজারল্যান্ডের কর্তৃপক্ষও সোমবারের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করেছে।