চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (এনএইচসি) শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ৪ জনের শরীরে নতুন করে করোনা শনাক্ত হলেও শুক্রবার কারও শরীরে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হয়নি। অবশ্য সাংহাই ও জিলিনের দুজনকে করোনা পজিটিভ হিসেবে সন্দেহ করা হচ্ছে।

উপসর্গহীন নতুন করোনা রোগীর সংখ্যা ৩৫ থেকে কমে ২৮ জনে নামার কথা জানিয়েছে এনএইচসি।

দেশের ভেতরে চলাফেলায় কড়াকড়ি আরোপ করায় গত মার্চ থেকে চীনে স্থানীয় সংক্রমণের হার কমতে থাকে। তবে হঠাৎ করে বিদেশফেরতদের মাধ্যমে ক্লাস্টার সংক্রমণ দেখা যায় জিলিন ও হেইলংজিয়াং প্রদেশে।

দ্বিতীয় দফার সংক্রমণ ঠেকাতে শহরের ১ লাখ ১০ হাজারের বেশি বাসিন্দার কোভিড-১৯ টেস্ট করায় কর্তৃপক্ষ।
কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার ফলে শুক্রবার প্রথমবার আক্রান্ত বা মৃত্যুর তালিকা অপরিবর্তিত থাকলো।

এ পর্যন্ত চীনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার ৯৭১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩৪ জনের।