ক্রোয়েশিয়ায় ৬.৪ মাত্রার ভূমিকম্প; ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

ক্রোয়েশিয়া ৬.৪ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত ৭ জন মারা গেছে। আহত হয়েছে অনেক মানুষ।

মঙ্গলবার বিকেলে মধ্য ক্রোয়েশিয়ায় এ ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

মৃত ৭ জনের মধ্যে একজন পেতরিনজা এলাকার। বাকি ৫ জন গ্লিনা শহরের আশেপাশে, বাকি ১ জনকে জাজিনা চার্চের পাশে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে। 

পেতরিনজা শহরের মেয়র জানান, ভূমিকম্পে শহরটির প্রায় অর্ধেকই ধ্বংস হয়ে গেছে। ধ্বংসাবশেষ থেকে লোকজনদের বের করে আনা হচ্ছে।

জীবিতদের খোঁজে উদ্ধারকারী কর্মীরা সারারাত ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলোর ধ্বংসস্তূপ পরিষ্কার করেছেন।

কর্মকর্তারা জানান, ভূমিকম্প পরবর্তী আফটারশকে আরও ক্ষয়ক্ষতি হওয়ায় রাতে অনেক লোক তাদের ঘরে ফিরে যেতে ভয় পাচ্ছিলেন। কিছু লোক তাদের গাড়িতেই ঘুমিয়েছেন বা অন্য এলাকায় আত্মীয়দের বাড়িতে থেকেছেন। প্রায় ২শ লোক মিলিটারি ব্যারাকে আশ্রয় নিয়েছেন।

ভূমিকম্পটি ক্রোয়েশিয়ার পাশাপাশি প্রতিবেশী সার্বিয়া এবং বসনিয়া ও হার্জেগোভিনায়ও কম্পন অনুভূত হয়েছে।

ইউরোপের ভূমধ্যসাগরীয় সিসমোলজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, দেশটির রাজধানী জাগরেব থেকে ৪৬ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

প্রাথমিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পের ফলে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ছাদ ভেঙে গেছে, কিছু ব্লিডিং ধসে গেছে।