করোনার নতুন ধরন নিয়ে খুব বেশি আতঙ্কিত হওয়ার প্রয়োজন নেই: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ইংল্যান্ডে করোনাভাইরাসের নতুন চরিত্র নিয়ে বিশ্বজুড়ে আশঙ্কা বাড়ছে। ৪০টির বেশি দেশ ব্রিটিশ নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। একের পর এক দেশ বন্ধ করছে বিমান পরিবহন সেবা। এই অবস্থায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) জানাল, ইংল্যান্ডে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরন নিয়ন্ত্রণের বাইরে যায়নি এবং এটি নিয়ে খুব বেশি আতঙ্কিত হওয়ার প্রয়োজন নেই।

তারা আশ্বস্ত করেছে, নতুন ধরনের ভাইরাসটির সংক্রমণের গতি এখনো নিয়ন্ত্রণের মধ্যেই আছে। আর সেটা নিয়ন্ত্রণে রাখতে নতুন কিছু করার প্রয়োজন নেই। যে পদ্ধতিগুলোতে করোনা মোকাবিলা করা গেছে, নতুন এ ভাইরাসকেও সেই একই পদ্ধতি মেনে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। তবে, সেটা করতে হবে আরও কঠোরভাবে।

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন স্ট্রেইনের ছড়িয়ে পড়ার খবরে ইতোমধ্যে বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। গত শনিবার লন্ডনসহ দেশের একাংশে লকডাউন ঘোষণা করে ব্রিটেন। এর কারণ, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৫০ শতাংশের শরীরে নতুন এ করোনা ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া গেছে।

এ অবস্থায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ইমার্জেন্সিস চিফ মাইক রায়ান বলেছেন, মহামারির মধ্যে ভাইরাসটির বিবর্তন সাধারণ ব্যাপার এবং এটি একেবারেই ‘নিয়ন্ত্রণের বাইরে নয়’।

এর আগে যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক মনে করছেন, এ ভাইরাস আগের স্ট্রেইনের থেকে ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রামক এবং সেদেশে তা ইতোমধ্যেই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে শুরু করেছে। স্বাভাবিকভাবেই, সংক্রমণের ভয়ে ইউরোপের দেশগুলো কড়া পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছে। যুক্তরাজ্য থেকে তাদের দেশে আসার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশগুলোসহ প্রায় ৪০টিরও বেশি দেশ যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এ তালিকা ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে।