আফগানিস্তানে আত্মঘাতী গাড়িবোমা হামলায় ৩০ সেনা নিহত, আহত ২৪

আফগানিস্তানে একটি আত্মঘাতী গাড়িবোমা হামলার ঘটনায় কমপক্ষে ৩০ সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো অন্তত ১৭ জন গুরুতর জখম হয়েছেন।

রবিবার দেশটির একটি সেনাঘাঁটিতে এই হামলা চালানো হয়েছে।

দেশটিতে গত কয়েক মাসের মধ্যে এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ হামলার ঘটনা। পূর্বাঞ্চলীয় গাজনি প্রদেশের রাজধানী গাজনি শহরের উপকণ্ঠে এই হামলা চালানো হয়েছে। এই অঞ্চলে বহুদিন ধরেই সরকারি বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের সংঘর্ষ চলছে।

তবে এই আত্মঘাতী গাড়িবোমা হামলা কে বা কারা চালিয়েছে, তা এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। বিস্ফোরণের পর ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

গাড়িবোমা বিস্ফোরণের পর নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা গোটা এলাকা ঘিরে ফেলেছেন। আফগানিস্তান থেকে আসা প্রাথমিক রিপোর্ট আনুযায়ী, স্থানীয় প্রশাসনকে বার্তা দেওয়াই লক্ষ্য ছিল জঙ্গিদের। 

এ হামলায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। হামলার ব্যাপারে তদন্ত শুরু হয়েছে। গজনি হাসপাতালের প্রধান জানান, এখন পর্যন্ত সেখানে ৩০ জনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। জখম অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে ২৪ জনকে। তাদের সবাই নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য।

সাম্প্রতিক সময়ে আফগানিস্তানে যুদ্ধের অবসান ঘটাতে শান্তি আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে আফগান সরকার ও তালেবান। কিন্তু শান্তি আলোচনার মধ্যেই একের পর এক হামলার ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। প্রায় দুই দশক ধরে চলা এসব সহিংসতায় এখন পর্যন্ত কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান বলেন, গাড়িভর্তি বিস্ফোরক নিয়ে আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে এক ব্যক্তি। সে তার গাড়িতে থাকা বিস্ফোরকে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।