নেপালে হঠাৎ বণ্যা ও ভূমিধসে ৪৩ জনের মৃত্যু, আহত ২৪ এবং নিখোঁজ আরও ৩০ জন

নেপালে তিন দিনের ভারী বৃষ্টিতে হঠাৎ বন্যা ও ভূমিধস দেখা দিয়েছে। বুধবার পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, বন্যা ও ভূমিধসে ৪৩ জন মারা গেছেন এবং আরও ৩০ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

পুলিশের মুখপাত্র বসন্ত কুনওয়ার জানান, ২৪ জনেরও বেশি লোক আহত হয়েছেন এবং আহতদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

অবিরাম বৃষ্টির কারণে রাজধানী কাঠমান্ডু থেকে ৩৫০ কি.মি. পশ্চিমে অবস্থিত সেতি গ্রামে পৌঁছতে পারছেন না উদ্ধারকর্মীরা। ফলে দুই দিন ধরে বন্যায় আটকে থাকা ঐ গ্রামের ৬০ জন বাসিন্দাকে উদ্ধার করতে পারছেনা উদ্ধারকারী দল।

কুনওয়ার রয়টার্সকে জানায়, খারাপ আবহাওয়া ও অবিরাম বৃষ্টির কারণে উদ্ধারকারী দল ঐ গ্রামে যেতে পারছে না। তবে আজকেও উদ্ধারকাজ চালানোর চেষ্টা করা হবে।

দেশটির টিভি চ্যানেলে দেখানো একটি ফুটেজে দেখা যায়, বন্যায় ফসলি জমি পানিতে তলিয়ে গেছে। নদীর পানি ঘর-বাড়ি, রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ ডুবিয়ে দিয়েছে।

বর্ষাকালে নেপালে হঠাৎ বন্যা ও ভূমিধস একটি সাধারন ঘটনা, যা প্রতি বছর সাধারনত মধ্য জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হয়ে থাকে।

এদিকে আগামী কয়েকদিন ভারী বর্ষনের আভাস দিয়েছে দেশটির আবহাওয়া কর্তৃপক্ষ। দেশটির আবহাওয়া অফিস আগামী দুই দিনের আবহাওয়া পূর্বাভাসে জানায়, দেশটির পূর্বাঞ্চলের কিছু জায়গায় ভারী বৃষ্টিপাত এবং হালকা তুষারপাত হতে পারে।