টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ব্যবহার হবে ব্যাট-ট্র্যাকিং প্রযুক্তি

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ব্যাট-ট্র্যাকিং ব্যবহার করতে যাচ্ছে আইসিসি। বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট ভক্তদের নতুন অভিজ্ঞতা দিতেই আইসিসির এই পদক্ষেপ।

ব্যাট-ট্র্যাকিং প্রযুক্তিটি তৈরি করেছে বিশ্বসেরা সনির অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হক-আই। ফলে হক-আইয়ের তৈরি এজ ডিটেক্টর এবং বল-ট্র্যাকিংয়ের পাশাপাশি এবার ব্যাট-ট্র্যাকিং প্রযুক্তিও দেখতে পাবে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা ক্রিকেট ভক্তরা। এছাড়াও ক্যাবলবিহীন স্পাইডারক্যাম এবং অন্যান্য ফিচার দিয়ে খেলা উপভোগ করতে পারবেন এবারের বিশ্বকাপের দর্শকরা।

ব্যাট-ট্র্যাকিংয়ের পাশাপাশি মাল্টি-অ্যাঙ্গেল 4D রিপ্লেও বিশেষ কিছু ম্যাচে ব্যবহার করবে আইসিসি। তবে এসব প্রযুক্তি সকল ম্যাচে ব্যবহার করবে না আইসিসি। এসব প্রযুক্তি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্ব সুপার-১২ থেকে ব্যবহার করবে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

আইসিসি’র অফিসিয়াল টিভি চ্যানেল প্রত্যেকটি ভেন্যুতে ৩৫টি করে ক্যামেরা ব্যবহার করে পুরো টুর্ণামেন্ট সম্প্রচার করবে বলে জানা যায়।

এদিকে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক নাসের হুসেইন ক্রিকেটে এসব নতুন নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করায় অত্যন্ত খুশি। তিনি বলেন, বিশ্বসেরা ক্রিকেটারদের নিয়ে একটি বড় আন্তর্জাতিক টুর্ণামেন্ট হতে যাচ্ছে।

নাসের হুসেইন আরো বলেন, এখানে আমরা শুধু বড় দল নয় ছোট দলগুলোরও সম্ভাবনা দেখতে পাই। আমি এই টুর্ণামেন্টে কাজ করার জন্য আর অপেক্ষা করতে পারছি না।