হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি জানার সহজ পদ্ধতি

141

শাহানা আফ্রিদা:

হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা কতটা কাছে? এক্ষুনি কি রোগীর হার্ট অ্যাটাক হতে পারে? এই সব প্রশ্নের প্রায় “নিখুঁত” উত্তর পেয়ে যাবেন পাঁচ সহজ পরীক্ষার ফলাফল হাতে নিয়ে। ওই পাঁচটা পরীক্ষার অংকটা বসিয়ে একটা বিশেষ “মূল্যায়ন চার্ট” তৈরি করে তা দেখে সাধারণ লোক (যিনি চিকিৎসক না হলেও) শেষ পর্যন্ত বিপদ কতটা কাছে এসেছে তা টের পাবেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ক্রিটিক্যাল কেয়ার বিশেষজ্ঞদের মধ্যে প্রবল জনপ্রিয়তা পাচ্ছে ওই চার্ট। যার পোশাকি নাম – মডিফাইড আর্মি ওয়ার্নিং স্কোর বা মিউজ। ঘটনা হল ওই ” সংশোধিত মূল্যায়ন চার্ট” বানিয়েছেন পেঞ্চালা স্বামী মিট্টাডোডলা নামে এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তার।

যিনি বর্তমানে আরকানসাস-এর মার্সি হসপিট্যালের আইসিইউ অধিকর্তা। ভারতীয় কার্ডিওলজিস্ট ও জরুরি বিভাগের চিকিৎসকেরাও এর প্রশংসায় পঞ্চমুখ। যেমন বিশিষ্ট কার্ডিওলজিস্ট সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায়ের মতে এটা খুব উপকারী হবে। চিকিৎসকদের দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে প্রভূত সাহায্য করবে।

পাঁচটা বিষয়ের তথ্য এই চার্টে নথিভুক্ত করা হয়। এক – হার্ট রেট। দুই – সিসট্যোলিক ব্লাড প্রেসার। তিন – রেসপিরেটরি রেট। চার – শরীরের তাপমাত্রা। পাঁচ – এ ভি পি ইউ স্কোর। সেই ফলাফল থেকে তৈরি চার্ট দেখলেই দ্রুত নির্ণয় করা সম্ভব কত দ্রুত রোগীর হার্ট অ্যাটাক আক্রান্ত হতে পারে। ইতিমধ্যেই এই রিপোর্ট অ্যামেরিক্যান জার্নাল অফ রেসপিরেটরি অ্যান্ড ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিনে প্রকাশিত হয়েছে।