ছেলেদের চুল পড়া ঠেকাতে দরকার খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন

159

ব্রিটিশ জার্নাল অব ডার্মাটোলজি’ সাময়িকীতে প্রকাশিত এক গবেষণা নিবন্ধ অনুযায়ী, চুল পড়ার হার গ্রীষ্মের শেষ দিকে ও শরতের শুরুতে বাড়তে থাকে। আবহাওয়ার কারণে এ সময় চুল পড়ার গতি বেড়ে যায়।

গবেষকেরা আটটি দেশের গুগল ট্রেন্ড তথ্য বিশ্লেষণ করেন। ‘হেয়ার লস’ লিখে গুগলে সার্চ হওয়ার বিষয়গুলো বিবেচনায় ধরা হয়। প্রায় ১২ বছরের সার্চ তথ্য বিশ্লেষণ করে গবেষকেরা এ তথ্য পান। এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রতিদিন কিছু চুল ঝরাকে স্বাভাবিক হিসেবে নেওয়া হয়। তবে অনেক সময় বেশি চুল ঝরতে থাকলে উদ্বেগ বাড়তে থাকে। তখন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। তবে চুল পড়া ঠেকাতে খাদ্যাভ্যাসে কিছু পরিবর্তন এনে দেখতে পারেন। কিছু খাবার আছে, যা চুল পড়া ঠেকাতে পারে।

মসুর ডাল
মসুর ডালে প্রচুর প্রোটিন, জিংক ও বায়োটিন থাকে। এর বাইরে এটি প্রচুর ফলিক অ্যাসিডের উৎস, যা লোহিত রক্তকণিকার স্বাস্থ্য ঠিক রাখে। এটি ত্বক ও মাথার তালুতে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন পৌঁছায়।

স্ট্রবেরি
স্ট্রবেরিতে প্রচুর পরিমাণে সিলিকা থাকে। এটি চুলের বৃদ্ধি ও শক্তি জোগাতে গুরুত্বপূর্ণ খনিজ হিসেবে কাজ করে। অন্যান্য সিলিকাসমৃদ্ধ খাবারের মধ্যে আছে ভাত, ওটস, পেঁয়াজ, বাঁধাকপি, শসা ও ফুলকপি।

দই
দইয়ের মধ্যে প্রচুর ভিটামিন বি৫ ও ভিটামিন ডি থাকে। এটি চুলের ফলিকলের স্বাস্থ্য সুরক্ষা করে। সময় পেলে দইয়ের মাস্ক তৈরি করে ব্যবহার করা যেতে পারে।

ভিটামিন সি-সমৃদ্ধ খাবার
শরীরে ভিটামিন সির অভাব হলে চুল পড়তে শুরু করে। ভিটামিন সি অ্যান্টিঅ্যাক্সিডেন্ট উপাদানের জন্য পরিচিত। এটি শরীরে মুক্ত র‍্যাডিকেলের ক্ষতি কমাতে পারে। চুলের দুর্বলতা কাটাতে ভিটামিন সি তাই যথেষ্ট উপকারী।