অফিসের কাজ বাসায় নেয়ার অভ্যাসটি ত্যাগ করুন

87

অফিসে কাজের চাপ অনেক! তাই বলে অফিসের কাজ বাসায় নিয়ে আসবেন না। এতে হয়ত সঙ্গীর সঙ্গে ঘনিষ্টতা নষ্ট হবে আর সেটার প্রভার গিয়ে পড়বে কাজের মধ্যেও।

সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, অফিসের কাজ বাসায় সারতে গিয়ে মোবাইলে ব্যস্ত থাকলে পারিবারিক জীবনে খারাপ প্রভাব ফেলে।

যুক্তরাষ্ট্রের আর্লিংটনে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অফ টেক্সাস’য়ের সহকারী প্রভাষক এবং এই গবেষণার সহকারী লেখক ওয়েইন ক্রফোর্ড বলেন, “প্রযুক্তির ব্যবহার এবং কর্মজীবীদের উপর এর প্রভাব সম্পর্কে অসংখ্য গবেষণা রয়েছে। তবে আমরা দেখতে চেয়েছিলাম যে, কাজের উদ্দেশ্যে প্রযুক্তির এই ব্যবহার ঘর পর্যন্ত পৌছালে স্বামী কিংবা স্ত্রীর উপর কী রকম নেতিবাচক প্রভাব ফেলে।”

‘জার্নাল অফ অকুপেশনাল হেলথ সাইকোলজি’তে প্রকাশিত এই গবেষণার জন্য ৩৪৪টি দম্পতিকে পর্যবেক্ষণ করা হয়, যাদের প্রত্যেকেই চাকরিজীবী এবং ঘরে অফিসের কাজ সারতে মোবাইল ফোন কিংবা ট্যাবলেট ব্যবহার করেন।

ফলাফলে দেখা, যখন পরিবারকে সময় দেওয়া উচিত ছিল অথচ তখন যারা ঘরে অফিসের কাজ করেছেন, তাদের কর্মজীবনে সন্তুষ্টি এবং কাজের পারদর্শীতা তুলনামূলক কম।

গবেষকরা বলেন, “স্বামী কিংবা স্ত্রীর সঙ্গে আবেগঘন সময় কাটানোর মূহূর্তে আপনি যদি মোবাইলে মুখ গুঁজে থাকেন তবে কলহ সৃষ্টি হওয়া মোটেও আশ্চর্যের বিষয় নয়। সেটা যদি হয় অফিসের কাজ তবে অবস্থা আরও বেগতিক হতে পারে। পরিণাম, স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই কর্মক্ষেত্রে সমস্যা সুত্রপাত।”

‘তাই, উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাদের কর্মীদের প্রতি যত্নবান হোক বা না হোক, তাদের বোঝা উচিত, অফিসের নির্ধারিত সময়ের পরেও কর্মীদের কাছ থেকে কাজ আদায় করা ওই কর্মীর ব্যক্তিগত ও কর্মজীবন দুটাই ধ্বংস করছে ক্রমাগত।”- বলেন গবেষকরা।