নুসরাত হত্যার বিচারের দাবি করেছেন তারকারা

7

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে রাজধানীর রাজপথে হাজারো মানুষের সঙ্গে মানববন্ধনে নেমেছেন চলচ্চিত্র তারকারা।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ১১টায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএফডিসি) সামনে নুসরাত হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেন তারা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, নায়ক আলমগীর, রিয়াজ, আলীরাজ, রোকেয়া প্রাচী, নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, গীতিকার কবীর রকুলসহ আরও অনেকে।

শনিবার বেলা ১১টা থেকে বঙ্গভবন থেকে গণভবন পর্যন্ত এই মানববন্ধন শুরু হয়। মানববন্ধনের পথ ধরা হয় রাজউক ভবন-দৈনিক বাংলার মোড়, পল্টন মোড়, প্রেস ক্লাব, হাইকোর্ট, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট, শাহবাগ, কাঁটাবন, বাটা সিগন্যাল, এলিফ্যান্ট রোড, সায়েন্স ল্যাবরেটরি-কলাবাগান হয়ে আসাদগেট।

তবে টানা এক লাইনে এসব এলাকায় মানববন্ধন না হলেও বিচ্ছিন্নভাবে এর প্রত্যেকটি এলাকায় মানববন্ধন পালন করা হয়েছে। মানববন্ধনে অংশ নেওয়া প্রত্যেকে কালো ব্যাজ ধারণ করেন।

সেই সঙ্গে তাদের হাতে ছিল নুসরাত হত্যার বিচার চেয়ে লেখা প্ল্যাকার্ড। মানববন্ধনে উপস্থিত হয়ে মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, ‘অবিলম্বে নুসরাতের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি হতে হবে’।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া সকলে নুসরাত হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের সর্বোচ্চ সাজার দাবি জানান।

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা, শহীদুল আলম সাচ্চু, পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, বদিউল আলম খোকন, শাহীন সুমন, শাহ মো. সংগ্রাম, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, কচি খন্দকার, বুলবুল বিশ্বাস। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির পাশাপাশি ডিরেক্টরস গিল্ডের কর্মীরাও এই মানববন্ধনে অংশ নেন।

এর আগে গত ৬ এপ্রিল ফেনীর সোনাগাজীতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের প্রতিবাদ করায় মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি পরীক্ষা দিতে গেলে মাদ্রাসার ভেতরেই দুর্বৃত্তরা তার গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়।

গুরুতর অবস্থায় ওই দিন রাতে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে গত বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নুসরাত মারা যান।