বিরল দৈত্যাকার কচ্ছপের সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা

13


শেষবার ১৯০৬ সালে ফার্নান্ডিয়ার দৈত্যাকার কচ্ছপকে দেখা। তারপরে আর তার কোনও অস্তিত্ব চোখে পড়েনি। বিজ্ঞানীরা ধরেই নিয়েছিলেন তার অস্তিত্ব মুছে গেছে পৃথিবী থেকে।

বিজ্ঞানীদের ধারণা নস্যাৎ করে আবারো গেল সেই বিরল প্রজাতির দৈত্যাকার কচ্ছপ। ফ্লোরিডার ফার্নান্ডিয়া দ্বীপে ১০০ বছরের সেই দৈত্যাকার কচ্ছপটিকে নৌকায় করে সান্টা ক্রুজ দ্বীপের সংরক্ষণ কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এতোটাই বৃদ্ধ সেই কচ্ছপ যে খুব বেশি নড়াচড়া করে না। একটি জায়গায় চুপ করে বসে থাকে। ফার্নান্ডিয়া দ্বীপেও সেভাবেই পড়েছিল কচ্ছপটি প্রথমে পাথর ভেবে ভুল করেছিলেন তাঁরা। হঠাৎ নড়ে উঠতেই চমকে ওঠেন তাঁরা।

ইক্যুয়েডরের পরিবেশমন্ত্রী মার্সেলো মাতা টুইট করে এই শতাব্দী প্রাচীন এই বিরল প্রজাতির কচ্ছপের অস্তিত্বের কথা জানান। চেলেনসোডিস ফান্টাস্টিকাস নামে এই বিরল প্রজাতির অস্তিত্ব একশো বছর আগেই বিলুপ্ত হয়ে যায় বলে ভেবেছিলেন বিজ্ঞানীরা।

তবে গত ১০০ বছর ধরে ঘাপটি মেরে এই দ্বীপের মধ্যে লুকিয়ে ছিলো সে। পরিবেশ বিজ্ঞানীরা মনে করছেন এই প্রজাতির আরও কচ্ছপ ওই দ্বীপে রয়েছে।

যদিও উদ্ধার হওয়া দৈত্যাকৃতি কচ্ছপটির জিন পরীক্ষা করে সত্যিকারের বয়স নির্ধারণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

যেখান থেকে এই বিরল প্রজাতীর কচ্ছপটি উদ্ধার করা হয়েছে সেই দ্বীপের বয়স অন্যান্য দ্বীপের থেকে কম। সেকারণেই একটু সন্দেহ রয়েই যাচ্ছে।