পর্তুগালের ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশি ঐতিহ্যবাহী পোশাকে ফ্যাশন শো

174

পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের ঐতিহ্যবাহী ফেস্টিভ্যাল ‘বাইরো ইন্তেন্দেন্তে’ শুরু হয়েছে। পর্তুগালের ঐতিহ্যবাহী এ মেলায় প্রতিবছরের মতো এবারও থাকছে নানা আয়োজন। লিসবনের লারগো ইন্তেন্দেন্তে পার্কে ৫ জুলাই থেকে শুরু হয়ে এ ফেস্টিভ্যাল চলবে ২২ জুলাই পর্যন্ত। প্রতি সপ্তাহে বৃহস্পতি, শুক্র, শনি ও রবিবার।

মেলার তৃতীয় দিনের আয়োজনে অন্যতম আকর্ষণ ছিল পর্তুগালে বসবাসরত বাংলাদেশি ফ্যাশন ডিজাইনার শারমিন মৌয়ের পরিচালনায় বাংলাদেশী ঐতিহ্যবাহী পোশাকে ফ্যাশন শো। এতে মডেল হিসেবে অংশ নেয় পর্তুগাল ও ইউরোপের নানান দেশের মডেলরা। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন, ওয়ায়েস খান, রাখি ছন্দা রায়, এনামুল হক, রেজাউল বাসেত, মো: রাব্বানী প্রমুখ।

‘সূর্যোদয়ে তুমি সূর্যাস্তেও তুমি’ শিরোনামের গানে বাংলাদেশি শিশুশিল্পী আহনাফের পতাকা হাতে র‌্যাম্পের মধ্য দিয়ে ফ্যাশন শো এর সূচনা হয়। ফ্যাশন শো শুরুর আগে নৃত্য পরিবেশন করেন বাংলাদেশী নৃত্যশিল্পী সুমাইয়া ও সাবিনা।

বাংলাদেশি পোশাকে ফ্যাশন শো আয়োজনের পিছনের কারণ বলতে গিয়ে ফ্যাশন শো পরিচালক ফ্যাশন ডিজাইনার শারমিন মৌ বলেন, আমি মনে করি পৃথিবীর সব মানুষ সমান। ভিন্ন ভৌগলিক অবস্থান কিংবা ভিন্ন গায়ের রঙ ফ্যাশন শোতে সবাই বাংলাদেশি পোশাক পরে অংশ নিয়েছে সেখানে পৃথিবীর নানা প্রান্তের মানুষ রয়েছে। ফ্যাশন শোতে বাংলাদেশি ঐতিহ্যবাহী পোশাকে সবাই আমরা সমান এটি আবারো ফুটে উঠেছে। এভাবেই সাংস্কৃতিক আদান-প্রদানের মানুষে মানুষে ভেদাভেদ কমিয়ে আনবে।

ফেস্টিভ্যালের দ্বিতীয় দিন বাংলা গান পরিবেশন করেন পর্তুগালে পিএইচডি গবেষণারত বাংলাদেশি শিক্ষার্থী কে এম মোস্তফা আনোয়ার স্বপন। এছাড়াও বাংলাদেশী ফটো সাংবাদিক এনামুল হকের চিত্র প্রদর্শনী চলছে মেলায়। পর্তুগালে বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকা মার্তৃম-মুনিজের পাশে হওয়ায় প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি মেলায় অংশ নিচ্ছেন।