ময়মনসিংহে সৌদি নাগরিকের লাশ উদ্ধার

8

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়ন থেকে আবু নাছের আল দুসারি (৪৫) নামে এক সৌদি নাগরিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার ডৌহাখলা গ্রামের আবু সাইদ সানির বাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ বাড়ির মালিক আবু সাইদ সানীকে মদ্যপ অবস্থায় আটক করেছে। অতিরিক্ত মদ্যপানে ওই সৌদি নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করছেন এলাকাবাসী।

আবু নাছেরের পাসপোর্ট সূত্রে জানা গেছে, তিনি সৌদি আরবের দাম্মাম নগরীর বাসিন্দা। তার বাবার নাম ফালেহ।

স্থানীয়রা জানান, হলি আর্টিজানে হামলা সংক্রান্ত ঘটনায় সারা দেশে বিদেশিদের ওপর নানা বিধি-নিষেধ আরোপ করায় ওই সৌদি নাগরিক সে সময় দেশে চলে যান। তবে এরপরও প্রায়ই আসতেন ওই বাড়িতে। সবশেষ গত ৯ ডিসেম্বর আবারো সানীর বাড়িতে আসেন আবু নাছের। এরপর থেকে আবু নাছের আর সানী এক সাথেই থাকতেন।

আটক সানীর উদ্বৃতি দিয়ে পুলিশ জানায়, ‘আবু নাছের একজন ভিসা ব্যবসায়ী। ২০ বছর আগে ঢাকার গুলশানের একটি হোটেলে আবু নাছেরের সাথে তার পরিচয় হয়। সেই থেকে তারা দুজনই ভালো বন্ধু এবং প্রায়ই অবকাশ যাপনের জন্য ওই বাড়িতে আসতো। বৃহস্পতিবার দুপুরবেলা খাবার খেয়ে দুজনেই মদপান করে ঘুমিয়ে পড়ে। কিন্তু রাত হয়ে গেলেও আবু নাছের ঘুম থেকে না উঠায় অনেক ডাকাডাকি করেও জাগাতে পারেনি। পরে চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসে।

গৌরীপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে তার মৃত্যুর খবর পেয়ে রাত ১২টার দিকে সৌদি নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার করি। এসময় ওই বাড়ির মালিক আবু সাইদ সানীকে মদ্যপ অবস্থায় আটক করা হয়।

তিনি আরো জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে আবু নাছের অতিরিক্ত মদপানে মৃত্যু হয়েছে। তবে তদন্ত শেষ না করে মৃত্যুর কারণ বলা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম বলেন, আবু নাছেরের মৃত্যুর বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সৌদি দূতাবাসকে জানানো হয়েছে।