ফেনীতে লবণের ট্রাকে ১০ হাজার ইয়াবা

8

ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলায় লবণের ট্রাকে করে পাচারের সময় দশ হাজার ইয়াবা আটক করেছে পুলিশ; এ সময় চালক ও তার সহকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ছাগলনাইয়া থানার ওসি এম এম মুর্শেদ জানান, সোমবার রাতে উপজেলার মুহুরীগঞ্জ এলাকার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে সোমবার রাতে ইয়াবার ওই চালান তারা আটক করেন।

আটকরা হলেন- ঢাকার ধামরাই থানার বড় কুশিয়ারা গ্রামের মো. মোতালেব মিয়ার ছেলে ট্রাক চালক আনোয়ার হোসেন হারেছ (৩৫) ও তার সহকারী কুমিল্লা জেলার হোমনা থানার কালামিনা গ্রামের মো. হানিফ মোল্লার ছেলে মো. ছিদ্দিক (২৮)।

ওসি বলেন, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে লবণ বোঝাই একটি ট্রাক ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। পথে ট্রাকটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে রুট পরিবর্তন করে ছাগলনাইয়ার মুহুরীগঞ্জ সড়কে ঢুকে পড়ে।

ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের কুহুমা শান্তিরহাট বাজার এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় গতিবিধি দেখে টহল পুলিশের সন্দেহ হয়।

তারা ট্রাকটিকে থামার জন্য সঙ্কেত দিলে চালক না থামিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ধাওয়া করে ট্রাকটি আটক করে বলে ওসি জানান।

তিনি বলেন, “পরে ট্রাকে তল্লাশি চালিয়ে ৫০টি প্যাকেট থেকে ১০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। পরে ওই ইয়াবা ও ট্রাকে থাকা ২০৭ বস্তা লবণসহ চালক ও তার সহকারীকে আটক করা হয়।”

ছাগলনাইয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুদীপ রায় জানান, উদ্ধার করা ইয়াবার বাজারমূল্য আনুমানিক ৫০ লাখ টাকা। ট্রাকের মালিক ঢাকার আশুলিয়ার মো. মাসুদ (৩২) নিজেই এ ইয়াবা চালনের সাথে জড়িত।

এ ঘটনায় তিনজনের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।