আজ আখেরি মোনাজাত হবে বাংলায়

76

আজ টঙ্গীর তুরাগ তীরে অনুষ্ঠিত ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত অনুিষ্ঠত হবে। এবার বাংলায় বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত হবার কথা রয়েছে। গত শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) রাতে তাবলিগ জামাতের মুরুব্বিদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ব ইজতেমার মুরুব্বি মো. গিয়াস উদ্দিন।

প্রায় দুই দশক ধরে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেছেন ভারতের প্রখ্যাত আলেম ও বিশ্ব তাবলিগ জামাতের আমির মাওলানা জোবায়েরুল হাসান। তিনি মারা যাওয়ার পর মোনাজাত পরিচালনা করেন ভারতের আরেক শীর্ষস্থানীয় তাবলিগ মুরব্বি মাওলানা সাদ কান্ধলভী। তবে মাওলানা সাদকে নিয়ে বিতর্ক ওঠার পর তিনি এবার টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না।

বিশ্ব ইজতেমার আয়োজক কমিটির সদস্য ও মুরুব্বি প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, এবার আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের কাকরাইলের মাওলানা হাফেজ জোবায়ের। আখেরি মোনাজাতের আগে হেদায়েতি বয়ান করবেন মাওলানা আবদুল মতিন। গত শুক্রবার রাতে তাবলিগ জামাতের মুরব্বিদের নিয়ে এক বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বৈঠকে ২০১৯ সালের ১১ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে। তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, প্রথম পর্ব হবে ১১, ১২ ও ১৩ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে ১৮, ১৯ ও ২০ জানুয়ারি।

বিশেষ বাস ও ট্রেন সার্ভিস: জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো. রাহাত হাসনাত জানান, আখেরি মোনাজাতের দিন মুসল্লিদের সুবিধার্থে ১৯টি বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে। এ ছাড়া সব আন্তনগর ট্রেন টঙ্গীতে যাত্রাবিরতি করবে। বিআরটিসি দুই শতাধিক স্পেশাল বাস সার্ভিস চালু করেছে। আখেরি মোনাজাতের দিন ছাড়াও ইজতেমা চলাকালে টঙ্গী স্টেশনে দ্রুতযানসহ প্রতিটি ট্রেন যাত্রাবিরতি করবে।