রানের পাহাড় ডিঙিয়ে হেসেখেলে জিতল অস্ট্রেলিয়া

11

ভারতের মাঠে ঐতিহাসিক জয় পেল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। ৩৫৮ রানের পাহাড় টপকে ৪ উইকেটে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-২ সমতা এনেছে সফরকারীরা।

রোববার মোহালির চণ্ডীগড়ে প্রথমে ব্যাট করে শিখর ধাওয়ানের সেঞ্চুরিতে ৩৫৯ রানের পাহাড় গড়ে ভারত।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে পিটার হ্যান্ডসকম্বের অভিষেক সেঞ্চুরিতে ১৩ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে অস্ট্রেলিয়া।

ভারতের বিপক্ষে ৩৫৯ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর তাড়া করতে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে যায় সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে দলীয় ১২ রানে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ও শন মার্সের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। চরম বিপদে পড়ে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরান আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি তুলে নেয়া উসমান খাজা।

তৃতীয় উইকেটে উসমান খাজার সঙ্গে ১৯২ রানের জুটি গড়েন হ্যান্ডসকম্ব। আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করা উসমান খাজা এদিন ফেরেন ৯৯ বলে ৯১ রান করে। তার বিদায়ের পর ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেয়া হ্যান্ডসকম্ব ফেরেন ১০৫ বলে আটটি চার ও তিন ছক্কায় ১১৭ রান করে।

এরপর একাই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন অ্যাস্টন টার্নার। তাকে সঙ্গ দেন ম্যাক্সওয়েল ও কেরি। ২৩ ও ২১ রানে ম্যাক্সওয়েল এবং কেরি বিদায় নিলেও ব্যাটিং তাণ্ডব অব্যাহত রাখেন টার্নার। তার ৪৩ বলের অপরাজিত ৮৪ রানের ইনিংসে ভর করে জয় নিশ্চিত করে ভারত।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অঘোষিত ফাইনালে ৩৫৮ রানের পাহাড় গড়েছে ভারত। দলকে ট্রফি উপহার দিতে ক্যারিয়ার সেরা ১৪৩ রানের ইনিংস খেলেন শিখর ধাওয়ান। এছাড়া ৯৫ রান করেন ওপেনার রোহিত শর্মা। রোববার মোহালির চণ্ডীগড়ে পাঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চতুর্থ খেলায় টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় ক্রিকেট দল।

আগের তিন ম্যাচে উদ্বোধনীতে ব্যর্থ রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান, এদিন গড়েন ১৯৩ রানের অনবদ্য জুটি।

একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে রিচার্ডসনের বলে ডিপ মিডউইকেটে হ্যান্ডসকম্বের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন রোহিত। তার আগে ৯২ বলে সাতটি চার ও দুটি ছক্কায় ৯৫ রান করেন রোহিত শর্মা।

সেঞ্চুরির কাছাকাছি গিয়ে রোহিত ব্যর্থ হলেও সফল ধাওয়ান। বিশ্বকাপের ঠিক আগ মুহুর্তে অফ ফর্মের কারণে সমালোচনার মুখে পড়া ধাওয়ান এদিন খেলেন ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। ৯৭ বলে ১৬তম সেঞ্চুরি তুলে নেন ধাওয়ান।

সেঞ্চুরির পর একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে থাকেন তিনি। পেট কামিন্সের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ১১৫ বলে ১৮টি চার ও তিনটি ছক্কায় ১৪৩ রান করেন ধাওয়ান। তার বিদায়ের পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় ভারত।

আগের দুই ম্যাচে ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি করা ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি এদিন ফেরেন মাত্র ৭ রানে। ৩১ বলে ২৬ রান করে আউট হন লোকেশ রাহুল। শেষ দিকে দুর্দান্ত খেলতে থাকা রিশব প্যান্ট ফেরেন ২৪ বলে ৩৬ রান করে। ১৫ বলে ২৬ রান করেন বিজয় শঙ্কর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ভারত:

৫০ ওভারে ৩৫৮/৯ (ধাওয়ান ১৪৩, রোহিত ৯৫, প্যান্ট ৩৬, রাহুল ২৬, বিজয় শঙ্কর ২৬, কেদার যাদব ১০, কোহলি ৭; পেট কামিন্স ৫/৭০, রিচার্ডসন ৩/৮৫)।

অস্ট্রেলিয়া:

৪৭.৫ ওভারে ৩৫৯/৬ (হ্যান্ডসকম্ব, ১১৭, উসমান খাজা ৯১, টার্নার ৮৪*, ম্যাক্সওয়েল ২৩, কেরি ২১)।

ফল: অস্ট্রেলিয়া ৪ উইকেটে জয়ী।