বিশ্বকাপে স্ত্রীদের সঙ্গে পাবেন মাশরাফিরা

7

আয়ারল্যান্ডে তিন জাতি সিরিজ খেলতে আগামী ১ মে ঢাকা ছাড়বে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। সেটি শেষে শুরু হবে বিশ্বকাপ প্রস্তুতি। পরে বিশ্বমঞ্চে পারফরম করতে নামবেন টাইগাররা। গ্রুপপর্ব পর্যন্ত খেললেও কমপক্ষে ৬৬ দিন বাহিরে থাকতে হবে মাশরাফি-সাকিবদের।

তবে এই দীর্ঘ সময়ে পরিবার ছাড়া থাকতে আপত্তি জানান তারা। তাদের দাবি-দাওয়াও মেনে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। চাইলে সফরের পরের ভাগে স্ত্রী-ছেলেমেয়েদের সঙ্গে রাখতে পারবেন ওরা।

বোর্ড পরিচালক আকরাম খান বলেন, চাইলে বিশ্বকাপের সময় পরিবার সঙ্গে রাখতে পারবেন মাশরাফিরা। এতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে খেলোয়াড়দের বউ-সন্তান নিয়ে যাওয়ার অনুমতি এখন আছে। যদিও আমাদের সময় এটি ছিল না। টিম ম্যানেজমেন্ট তখন অনেক সিরিয়াস ছিল। গেল বিশ্বকাপেও আমরা খেলোয়াড়দের পরিবার নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছি। এতে কোনো সমস্যা নেই।

শোনা যাচ্ছে, আয়াল্যান্ডে সফরের পর দেশে ফিরতে চান ক্রিকেটাররা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে হাতে চার-পাঁচ দিন সময় থাকবে। এর মধ্যে দেশে ফিরে আবার ইংল্যান্ডে যাওয়া একটু বাড়তি ঝামেলা বটে। তবে কেউ যদি আসতে চায় তা হলে বোর্ড পূর্ণ সহযোগিতা করবে। আমরা ‘না’ করব না।

আগামী ৭ মে শুরু হবে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট। সেখানে বাংলাদেশের সঙ্গে অপর দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজ শেষ হবে ১৭ মে। এর পরই শুরু হবে টাইগারদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি। ২৪ মে থেকে আইসিসি বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাওয়া দলগুলোর দায়িত্ব বুঝে নেবে। ১৮ মে থেকে ২৩ মে পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত বিরতি পাবেন সাকিবরা। ৩০ মে পর্দা উঠবে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরের।