দিনশেষে চালকের আসনে কিউইরা

11

দিনের শুরুতে ভালো কিছুর আভাস দিচ্ছিল তামিমের ব্যাট। কিন্তু দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গেই যেনো পাল্টে যায় চিত্র। সাদমানের বিদায়ের পরেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়তে থাকে বাংলাদেশের।

এর মধ্যেই কিউই পেসারদের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল। মাত্র ৫৯.২ ওভার খেলে ২৩৪ রানেই অলআউট বাংলাদেশ।

এই রানের মধ্যে তামিম ইকবাল একাই করেন ১২৬ রান। দিন শেষে দুই ওপেনার মিলেই তুলে ফেলে ৮৬ রান। স্বাগতিকরা পিছিয়ে আছে মাত্র ১৪৮ রানে।

টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। শুরুটা শুভ হয় টাইগারদের।

উড়ন্ত সূচনা এনে দেন তামিম ইকবাল ও সাদমান ইসলাম। ৩২ বলে ২৪ রান করে ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন সাদমান। এতে ভাঙে ৫৭ রানের ওপেনিং জুটি।

এরপর নতুন ব্যাটসম্যান মুমিনুল হককে দর্শক বানিয়ে শটের রোমাঞ্চ দেখান তামিম। ১৩তম ওভারের প্রথম তিন বলে বোল্টকে টানা তিনটি চার মেরে মাত্র ৩৭ বলে নিজের হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন এই ওপেনার।

তামিম ছাড়া উল্লেখ করার মতো রান আসে কেবল লিটন দাস (২৯) ও সাদমানের (২৪) ব্যাট থেকে। দলীয় ১২১ রানে ওয়েগনারের বলে ওয়াটলিংয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ১২ রানে ফেরেন মুমিনুল। তবে মুমিনুল ফিরলেও ৮৬ রানে অপরাজিত থেকে লাঞ্চ বিরতিতে যান তামিম।

বিরতি থেকে ফিরে মোহাম্মদ মিঠুনকে সঙ্গে করে এগুতে থাকেন তিনি। দুর্দান্ত ব্যাট করে নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন তামিম ইকবাল।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঝড়ো ব্যাট চালিয়ে বরাবর ১০০ বলে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে চলে যান এই ড্যাশিং ওপেনার।

তামিম শতক তুলে নিলেও মিঠুন (৮) ও সৌম্য (১) দুই অঙ্ক ছোঁয়ার আগে সাজঘরে ফেরেন। এরপর তামিমের সঙ্গে ব্যাটিংয়ে আসেন দলপতি মাহমুদউল্লাহ। তাকে সঙ্গে করে এগুতে থাকেন তামিম।

তবে দলীয় ১৮০ রানে উইকেট বিলিয়ে দেন তিনি। গ্রান্ডহোমের বলে উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ১২৮ বলে ২১ চার ও ১ ছক্কায় ১২৬ রানের ইনিংস খেলেন তামিম। মাহমুদউল্লাহ ২২, লিটন দাস ২৯, মেহেদি মিরাজ ১০, আবু জায়েদ ২, খালেদ আহমেদ ০ এবং এবাদত হোসেন ০ রান করেন।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে একাই ৫ উইকেট তুলে নেন ওয়াগনার। তিনটি নেন টিম সাউদি। আর একটি করে নেন ট্রেন্ট বোল্ট ও গ্রান্টহোম।

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম দিন শেষে কিউইরা তুলেছে বিনা উইকেটে ২৮ ওভারে ৮৬ রান। দুই ওপেনার অপরাজিত থাকেন। জীত রাভাল ৮৯ বলে ৫১ এবং টম ল্যাথাম ৭৯ বলে ৩৫ রান করে অপরাজিত আছেন।

এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে টসে হেরে ব্যাটিং করতে নামে বাংলাদেশ। হ্যামিল্টনের সেডন পার্কে বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় প্রথম দিনের খেলা শুরু হয়। এ ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক হলো পেসার এবাদত হোসেনের।