বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে পছন্দের তালিকায় শীর্ষে মালয়েশিয়া

358

সাইদুর রহমান আবির:

উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশমুখী বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে। এর কারণ হিসেবে দেশের শিক্ষাবিদরা দায়ী করছেন শিক্ষার গুণগত মান ও উপযুক্ত পরিবেশকে।

তবে শিক্ষাবিদদের এমন মন্তব্যের সাথে দ্বিমত পোষণ করেছেন ইউজিসি চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, উচ্চাবিলাসীরাই পরিবার ও ব্যক্তিগত বিভিন্ন কারণে উচ্চ শিক্ষা অর্জনে পাড়ি জমাচ্ছে বিদেশে।

তবে, বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে বাংলাদেশে শাখা খোলার বিষয়টি আমলে নেয়ার তাগিদ দেন তিনি।

প্রতি বছর দেশের অনেক শিক্ষার্থী বিভিন্ন ধরনের বৃত্তি অথবা অধ্যায়নরত বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক সহায়তা নিয়ে উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পারি জমাচ্ছে।

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে উচ্চ শিক্ষার তালিকা

বিশ্বায়নের এই যুগে কেউ অন্য দেশে বৈধভাবে উচ্চ শিক্ষার জন্য পারি জমাতে চাইলে তা বন্ধ করারও কোন উপায় নেই। আর সেই সুযোগটিই লুফে নিচ্ছে বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

ইউনেস্কোর এক প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে পছন্দের তালিকায় শির্ষে মালয়েশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েল সাবেক ভিসি আরেফিন সিদ্দিকের সঙ্গে রিপোর্টার সাইদুর রহমার আবির

গ্লোবাল ফ্লো অব টারশিয়ারি লেভেল স্টুডেন্টস শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বছরে ২৪ হাজার ১১২ জন শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশ পাড়ি জমায়।

এর মধ্যে ৫ হাজার ২৭১ জন মালয়েশিয়া, জার্মানিতে ৯৯৩, ভারতে ৭৭৪, সৌদি আরবে ৭৩২ এবং ফিনল্যান্ডে যান ৫৩৫ জন শিক্ষার্থী।

 

ইউজিসি চেয়ারম্যানের সঙ্গে রিপোর্টার

আর এর কারণ খুঁজতে কথা হয় দেশের শিক্ষাবিদদের সাথে। তারা মনে করেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে শিক্ষার মানের তফাৎ এবং উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে মেধা পাচার হচ্ছে বিদেশে।

তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে, ভালো শিক্ষার্থীদের উন্নত সুযোগ সুবিধা দিয়ে, বিদেশ যেতে নিরুৎসাহিত করা সম্ভব কিনা জানতে চাইলে ইউজিসির চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল মান্নান বলেন, দেশে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে পরিপূর্ণ ডিজিটাল ব্যবস্থার পাশাপাশি, গবেষণা বাড়াতে।

রিপোর্টার: সাইদুর রহমান আবির

এ লক্ষ্যে, ইউজিসি আপোষহীনভাবে কাজ করে যাচ্ছে।