ফাগুনের পড়ন্ত বিকেলে বইমেলায় উৎসবের আমেজ

147

জাহিদ আহমেদ বাবু:

মহান একুশকে ঘিরে একুশের গ্রন্থমেলা জেগে উঠেছে নব উদ্যেমে। সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করে প্রতিক্ষায় আছে সবাই। কখন আসবে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ যখন শহীদদের স্মরণে শোকের মাতম ভুলে কন্ঠে কন্ঠে প্রতিধ্বনিত হবে আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি।

পলাশ আর শিমুল চারদিকে রক্ত লাল আভা ছড়িয়ে স্মরণ করিয়ে দেয় একুশের কথা। বায়ান্নর ভাষা সংগ্রামীদের শ্রদ্ধা জানাতে পুরোপুরি প্রস্তুত একুশের বইমেলা। তাইতো ফাগুনের পড়ন্ত বিকেলে বইমেলায় ছিল উৎসবের আমেজ।

একুশের বিশেষ দিনটি উপলক্ষ্যে মেলার প্রতিটি স্টলই সাজানো হয়েছে ভিন্ন আঙ্গিকে। তাই বইমেলায় আসা পাঠক লেখক এবং ক্রেতাদেরও অপেক্ষা একুশ বরণে।

একুশ উপলক্ষে আশাতীত বই বেচাকেনা হওয়ায় প্রকাশকরা জানান, এই সাফল্য গোটা বাঙালির। আন্তর্জাতিক অঙ্গণেও বাংলা ভাষার প্রচলন করতে বিভিন্ন সংগঠনকে এগিয়ে আসতে হবে বলে জানান বিশিষ্টজনরা। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পুরো এলাকাজুড়ে নিয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।