গোলাপ ও কার্ড পেছনে ফেলে প্রেমে এগিয়ে ফোন ও গয়না

102
Heart shaped box of chocolate truffles with red roses

রবি মোহাম্মদ:

প্রযুক্তির উপর ভর চলে এগিয়ে যাচ্ছে মানব সভ্যতা। পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে মানুষের জীবনধারা। পাল্টে যাচ্ছে প্রেমের চিত্রটাও। ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। আগে প্রেমে কার্ড ও গোলাপ আদান প্রদান করাও হলেও এই আদান প্রদানের চিত্রটা বদলে যাচ্চে। গোলাপ বা কার্ড বিক্রি কম হলেও ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’ উপলক্ষে দামি ফোন, ল্যাপটপ, আইপ্যাডের মতো বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম বিকোচ্ছে হু হু করে।

নামী ডিজিটাল বিপণিজুড়ে নানা লোভনীয় অফারের ছড়াছড়ি। স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস ঈদ বা বড়দিনের ছুটির মতোই ভ্যালেন্টাইন সপ্তাহ জুড়েও এখন তাঁদের ‘বিগ ডে’। অন্য দিন এক কোটি টাকার বিক্রিবাটা হলে, এমন দিনে হেসেখেলে ৩০-৪০ লাখ টাকা বেশি হবে।

তবে ফুলের বাজারের আদি যুগের বিক্রেতাদের অভিজ্ঞতা ফোনের দোকানের সঙ্গে মিলবে না। তাঁদের আফশোস, গত বার নোটবন্দিতে খানিক ঘা খাওয়ার পরে এ বার বাজার চাঙ্গা হয়েছে ভেবে পসরা সাজিয়েছিলেন!

সাধারণ দিনের তুলনায় দশগুণ বেশি গোলাপ মজুত রেখে এখন হাত কামড়াতে হচ্ছে। বাড়তি গোলাপের সিকিভাগও বিক্রি হচ্ছে না পশ্চিমবঙ্গে তবে বাংলাদেশে গোলাপ বিক্রির দাম বাড়ছেই কমেনি।

তবে চিরকাল গোলাপের মর্ম প্রেমিক-প্রেমিকারা একেবারে ভুলতে বসেছেন তাও বলা যাবে না। আজ বুধবার বিশ্বভালোবাসা দিবসে নার্সারির বিপনিতেও বাজার মুল্যে বিক্রি করা হবে গোলাপ।

কিছুটা মন্দা কার্ডের বাজারেও। কেন এই হাল? ৫০০ থেকে ২০০০ টাকা দামের উপহার, স্মারক যা-ও বা বিকোচ্ছে, কম দামি কার্ডের শুভেচ্ছা কার্যত অপ্রাসঙ্গিক। কার্ড কারবারিদের কারও কারও আবার ব্যাখ্যা, কিছু স্কুলে পরীক্ষা শুরু হয়ে গিয়েছে।

অন্য বার তা আর ক’দিন বাদে শুরু হয়। কারও কারও ভ্যালেন্টাইন-বিমুখতার সেটাও কারণ হতে পারে। তবে এটি ভারতের চিত্র বাংলাদেশের নয়।

আই ফোন

তবে দোকানের ভিড়টাকেই ভ্যালেন্টাইন-আবেগের মাপকাঠি ধরলেও ডাহা ভুল হবে। অনলাইন কেনাবেচার পসার ইদানীং জাঁকিয়ে বসেছে। উপহারের তালিকায় স্মার্টফোন, বাহারি ঘড়ি থেকে হিরার গয়না বাদ নেই কিছুই।

 

লেখক: রবি মোহাম্মদ

অনলাইন বিপণির সংশ্লিষ্টরা জানান, ভ্যালেন্টাইন্স ডে’র উপহার কেনার উন্মাদনায় দেশের বিভিন্ন শহরের মধ্যে রয়েছে। এছাড়া ঘরে ঘরে খাবার সরবরাহও দেখা যায়।

চকলেট, পিৎজা বা রেড ভেলভেট কেক অর্ডার করার প্রবণতা কয়েক বছর ধরেই বেশি এই দিবসকে ঘীরে।

অফার দেওয়ায় পিছিয়ে নেই গয়নার দোকান, রেস্তোরাঁ মায় বাঙালি মিষ্টির দোকানও। মিষ্টির দোকান বানাচ্ছে হার্টের আকারের হোয়াইট চকলেট ভরপুর সন্দেশ। রেস্তোরাঁর মেনুতেও জুটিতে চাখার রকমারি আকর্ষণ।