এটিএম বুথ জালিয়াতি: বাংলাদেশে ইউক্রেন নাগরিকদের বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছে ডিবি

ব্যাংকের অটোমেটেড টেলার মেশিন (এটিএম) থেকে ডিজিটাল জালিয়াতির ঘটনায় ইউক্রেনের ৬ নাগরিক গ্রেফতার হওয়ার পর সম্প্রতি ওই দেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এরই মধ্যে ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে সংস্থাটি তথ্যও চেয়েছে। ডিবির ধারণা, এ চক্রের আরও সদস্য এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে।

ইউক্রেন থেকে আসা তাদের একাধিক সদস্য এখন আত্মগোপনে আছে। এ কারণে সম্প্রতি ইউক্রেন থেকে আসা নাগরিকদের বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। ডিবি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পূর্ব বিভাগের ডিসি খন্দকার নুরুন্নবী বলেন, এটিএম বুথে জালিয়াতির ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে। তাদের এখনও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি।রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তাদের সহযোগীদের বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাবে।

ডিবি জানায়, ১ জুন সন্ধ্যায় রাজধানীর খিলগাঁও তালতলা এলাকার ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের একটি বুথ থেকে অভিনব পদ্ধতিতে জালিয়াতি করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার সময় ইউক্রেনের এক নাগরিককে আটক করে বুথের নিরাপত্তাকর্মীরা। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতে পান্থপথের হোটেল ওলিও ড্রিম হ্যাভেনে অভিযান চালিয়ে আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়।

এই চক্রটি দু’দিনেই ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের ৯টি বুথে হানা দিয়ে ১৪-১৫ লাখ টাকা তুলে নেয়। বড় টার্গেট নিয়ে আসা চক্রটি দ্রুত গ্রেফতার হওয়ায় বড় ধরনের বিপর্যয় থেকে দেশের ব্যাংকিং খাত রক্ষা পেয়েছে বলে মনে করছেন গোয়েন্দারা।

ডিবি কর্মকর্তারা জানান, ভয়াবহ এ জালিয়াতির ঘটনার পর ব্যাংকগুলোর বুথের নিরাপত্তা জোরদারের পাশাপাশি বিদেশি নাগরিক টাকা তুলতে কোনো বুথে প্রবেশ করলে তার ওপর বাড়তি নজরদারির নির্দেশনা দেয়া হয়েছে নিরাপত্তাকর্মীদের। বুথে টাকা তুলতে গিয়ে কেউ বেশি সময় থাকলে নিরাপত্তাকর্মীকে ভেতরে বিষয়টি দেখতে বলা হয়েছে।

ডিবি সূত্র জানায়, বুথে অভিনব এ জালিয়াতির রহস্য উদঘাটন করতে ডিবির সাইবার ক্রাইম ইউনিট, সিআইডি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটের বিশেষজ্ঞ টিম একসঙ্গে কাজ করছে।

0

Related posts

Leave a Comment